রাকিব হাসান রোশান নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট) এবং চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট (সিপিআই) এর সাবেক শিক্ষার্থী এবং ভোলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট (বিএইচপিআই) এর ইলেকট্রনিক্স বিভাগের শিক্ষক আবদুর রহমান শামীম দুরারোগ্য লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন।মাস খানেক পূর্বে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল কলেজ (পিজি) হাসপাতালের ডি-ব্লক পাঁচ তলা, এমএনপি-০১ নম্বর বেডে তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন।

চিকিৎসকরা জানিয়েছিলো তার লিভারে টিউমার ধরা পড়েছে, যা বর্তমানে ক্যান্সারের থার্ড স্টেজে রূপ নিয়েছে। এর চিকিৎসা বাংলাদেশে সম্ভব নয়। চিকিৎসকরা ভারতের চেন্নাইতে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। সেখানে চিকিৎসা বাবদ প্রায় অনেক টাকা খরচ হতে পারে। এ চিকিৎসার ব্যয়-ভার তার নিজের বা পরিবারের একার পক্ষে বহন করা সম্ভব ছিলো না।

শিক্ষক, ছাত্র, বিভিন্ন সংগঠন, প্রতিষ্ঠান,ব্যক্তিবর্গ থেকে স্যারের জন্য সাহায্য তুলে।গত ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ভারতের দিল্লির Medanta Hospital এ চিকিৎসাধীন ছিলো।

গতকাল,১০ সেপ্টেম্বর শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জানা যায়,শামীম স্যারের অবস্থার অবনতি হয়েছে। ডাক্তার রা ৭২ ঘন্টা ওনার জন্য খুবই ক্রিটিক্যাল বলেছে।পেট ফুলে গেছে, মেডিসিন নিতে পারছে না,শরীরের চামড়া ডিস কালার হয়ে গিয়েছে।

আজ,১১ সেপ্টেম্বর দুপুর ৩ টা নাগাদ খবর পাওয়া যায়,ভারতের দিল্লির Medanta Hospital এ চিকিৎসাধীন অবস্থায় শামীম স্যার শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করে।বিষয় টি নিশ্চিত করেছেন স্যারের পরিবারের লোক,ও ভোলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এর শিক্ষক ইঞ্জিনিয়ার গিয়াস উদ্দিন সহ স্যারের শিক্ষার্থীরা।

ভোলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ও শিক্ষার্থীদের মাঝে, শোকের ছায়া পড়েছে। কেউ মেনে নিতে পারছে না স্যার এভাবে সবাইকে ছেড়ে বিদায় নিবে।

Leave a Reply