রাকিব হাসান রোশান,স্টাফ রিপোর্টারঃ পাবনার চাটমোহরের হরিপুর ইউনিয়ন এর কাতুলী গ্রামে চুরির ঘটনা ঘটেছে।

১২ সেপ্টেম্বর, রবিবার আনুমানিক সন্ধ্যা ৭ টার দিকে অসহায় রওশনয়ারা(শুটকি) ঘরে চুরির ঘটনা ঘটেছে।

মায়ের রেখে যাওয়া শেষ সম্বল স্বর্ণের একজোড়া হাতের চুড়ি,রুপার মালা,খাবার ১০ কেজি চাল,হাড়ি-পাতিল,লেপ, তোষক নিয়ে গেছে চোর।

অন্যের বাড়িতে কাজ করে দিন চলে রওশনয়ারার।বিয়ের সৌভাগ্য হয়নি,একা থাকেন টিনের চালা ঘরে।তার সাথে এমন টি ঘটায় পাগলের মত দিশেহারা হয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছেন,বেশি আবেগাপ্লুত হয়েছে মৃত্যুর আগে তার মায়ের রেখে যাওয়া শেষ সম্বল টি হারিয়ে।

একই গ্রামে বাড়ি রওশনয়ারার বড় বোন জানান,”সারাদিন কাজ করেছে পেটে একমুঠো ভাত ও পড়েনি সন্ধ্যায় খাবার জন্য আমাদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে আসি।কয়ডা ভাত ও খেলো, খেয়ে কেবলই বাড়ি গেছে গিয়ে দেখে দরজা খোলা,সবকিছু ওলট পালট।ঘরে যা কিছু ছিলো সব চোর নিয়ে গেছে।

রওশনয়ারা কান্নায় ভেঙে পড়ে বলেন,”আমার এই সর্বনাশ কে করলো!আমার মায়ের হাতে রেখে যাওয়া স্বর্ণের চুড়ি,রুপার মালা,হাড়ি পাতিল,লেপ তোষক সব নিয়ে গেছে চোর।আমার এই ক্ষতি কে করলো,বলতে বলতে অজ্ঞান হয়ে যায় অসহায় রওশনয়ারা।

তিনি আরো বলেন,”আমি সন্ধ্যার সময় বুনির বাড়ি ভাত খেতে যাই।খেয়ে এসে দেখি আমার ঘর খোলা,ঢুকে দেখি সব এলোমেলো,লেপ তোষক কিচ্ছু নাই। ঘরে বাক্স নাই, মায়ের দেওয়া চুড়ি,মালা চালের কোলার মধ্যে রেখে দিছি,কোলা ও নাই,আরেক কোলায় চাল রাখা ছিলো,চাল ও নাই। কাল কি খাবো, জানিনা।আমার এত বড় অন্যায় কিডা করলো।”

গ্রামবাসীরা জানায়,”এই কাজ তার সাথে কে করলো,আল্লাহ যেন তাকে উত্তম শাস্তি দেয়।কত কষ্ট করে চলে,সারাদিন কাজ করে দুবেলা খাওয়ার জন্য, তার খাওয়ার চাল গুলোও রাখলো না চোর,মায়ের শেষ স্মৃতি টা ও রাখলো না,এমন হৃদয়বিদারক ঘটনা ঘটেছে সত্যি ভাবতেই কষ্ট হচ্ছে। আমরা আশে পাশে অনেক খোঁজাখুজি করেছি, কোনো সন্ধান পাইনি।রওশনয়ারার পাশে সকলকে এগিয়ে আসার জন্য অনুরোধ করছি। কেউ একজন এগিয়ে আসুন,তার দু’বেলা খাবারের চালের ব্যবস্থা করে দেন।উপজেলা চেয়ারম্যান মহোদয়, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট আকুল আবেদন বিষয়টি বিবেচনা করে একটা ব্যবস্থা করে দিবেন।”

এ ব্যাপারে হরিপুর ইউনিয়ন ৯ নং ওয়ার্ডের জনপ্রতিনিধি মেম্বার রোকনুজ্জামান রোকন কে অবগত করলে,তিনি নিন্দা জ্ঞাপন করে এমন একটি হৃদয় বিদারক ঘটনাকে।

তিনি আরো বলেন,এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান মহোদয়ের সাথে আলোচনা করে যতটুকু পাশে দাঁড়ানো সম্ভব হয় ইনশাআল্লাহ আমরা দাঁড়াবো।

Leave a Reply