শেরপুর সদর প্রতিনিধি পনির:

ছয় জনের প্রাণ হানির পর বেচেঁ রইলো ৬ বছরের শিশু রুমি। এই দূর্ঘটনায় নিহত রোকসানার আহত শিশু কন্যা রুমি জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

শেরপুর সদর উপজেলায় ট্রাকের ধাক্কায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অটোরিকশার আরও এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ নিয়ে এই দুর্ঘটনায় ৬জন নিহত হয়েছেন। হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১জন। নিহত যাত্রীর নাম মামুন মিয়া (২৪)। তিনি নালিতাবাড়ীর বাসিন্দা ছিলেন।

শেরপুর-ঝিনাইগাতী সড়কের বাজিতখিলা ইউনিয়নের মির্জাপুর এলাকায় রোববার সকাল ৯টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে ছয় জনের পরিচয় নিশ্চিত করেছে পুলিশ। বাকি পাচঁ জন হলেন, অটোরিকশার চালক নালিতাবাড়ী উপজেলার বন্ধধারা গ্রামের জাবেদ আলী, রাজনগর ইউনিয়নের চাঁদগাও গ্রামের নায়েব আলীর ছেলে সেলিম, নিহত সেলিমের স্ত্রী ময়না, একই গ্রামের রফিকুল ইসলামের স্ত্রী রোকসানা বেগম, মৃত কেতু মিয়ার ছেলে লাল মিয়া।

সদর থানার উপপরিদর্শক এসআই সুমন দেবনাথ জানান,সিএনজিটি নালিতাবাড়ী উপজেলার নন্নী বাজার থেকে শেরপুর শহরের দিকে আসছিলো।তাতে চালক জাবেদ আলী সহ সাত আরোহী ছিলেন।পথে মির্জাপুর এলাকায় নাকুগাওগামী ট্রাকের সঙ্গে সিএনজির সংঘর্ষ হয়।
তিনি আরও জানান, সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশায় থাকা তিন জন নিহত হন। আহতদের চার জনকে সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও এক জনের মৃত্যু হয়।

আরএমও ডাক্তার খায়রুল কবির সুমন জানান, দুর্ঘটনায় আহত অন্যদের সঙ্গে মামুন মিয়া শেরপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হান্নান মিয়া জানান, দুর্ঘটনার পর ট্রাকচালক পালিয়ে গেছেন। কিন্তু ঘাতক ট্রাকটিকে আটক করে সদর থানায় রাখা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *