কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ-

কিশোর বয়স থেকেই শ্বেত রোগে আক্রান্ত খুইল্যা বিবি। বয়স এখন গিয়ে ঠেকেছে পঞ্চাশে। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তাঁর শরীরে নানা রোগে বাসা বাঁধে। এক যুগেরও বেশি সময় আগে হারিয়েছেন নিজের চোখ দুটি। নানা রকম জটিল রোগে আক্রান্ত খুইল্যা বিবিকে বিয়ের মাত্র দুই বছরের মাথায় স্বামী ছেড়ে চলে যায়। কোলে আসেনি কোন সন্তানও।

সারাদিন ভিক্ষা করে রাত কাটে আত্মীয়-স্বজনের এবাড়ি-ওবাড়িতে।
মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার মানবিক উদ্যোগে পাল্টে গেছে খুইল্যা বিবির জীবন। শনিবার তিনি পেয়েছেন নিজের নামে জমি সহ মাথা গোঁজার ঠাঁই।

মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে খুইল্যা বিবির মত কক্সবাজারের জমি ও গৃহহীন অতি দরিদ্র ৮৬৫ পরিবার পাচ্ছে জমি সহ ঘর। ১ম পর্যায়ে শনিবার পেয়েছেন ৩০৩ পরিবার। বাকিগুলো আগামী ১৭ মার্চের আগেই পাবেন বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।
ঘরের সনদ, দলিলসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র বুঝে পাওয়ার পর অনুভ‚তি প্রকাশ করতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন খুইল্যা বিবি। নিঃসঙ্গ খুইল্যা বিবির রাত কাটানো নিয়ে এখন আর দুশ্চিন্তা নেই। সারাদিন ভিক্ষা করে অন্তত নিজের বাড়িতে নিরাপদে থাকার সুযোগ হয়েছে। এখন তিনি চান তার চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা। জীবনের বাকি সময়টা সুস্থভাবে কাটাতে চান তিনি।

উল্লেখ্য,মুজিববর্ষের উপহার হিসেবে শনিবার দেশব্যাপী প্রায় ৭০ হাজার ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘর বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

কক্সবাজারে প্রথম ধাপে ৩০৩ জন উপকারভোগীর মাঝে নতুন বাড়ি হস্তান্তর করা হয়েছে। এর মধ্যে চকরিয়া উপজেলায় ৮০টি, পেকুয়া উপজেলায় ১৪টি, রামু উপজেলায় ৬০টি, মহেশখালী উপজেলায় ২০টি, উখিয়া উপজেলায় ৩৫টি, টেকনাফ উপজেলায় ৬০টি এবং কুতুবদিয়া উপজেলায় ১৪টি ঘরের চাবি উপকারভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হয়।

কক্সবাজার সদর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে নতুন ঘরের চাবি বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মো মামুনুর রশীদ।
এতে আরো বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য কানিজ ফাতেমা আহমেদ, পুলিশ সুপার মো.হাসানুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আমিন আল পারভেজ, জেলা আওয়ামীলীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এ্যাডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, সাবেক সংসদ সদস্য এথিন রাথাইন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কায়সারুল হক জুয়েল, বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল হোসেন চৌধুরী, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুরাইয়া আক্তার সুইটি, কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মুজিবুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের সভাপতি সোহেল আহমেদ বাহাদুর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *