শেখ মো.সোহেল রানা, মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ মুন্সিগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানে একাধিক মামলার এজাহার নামীয় আসামী মাওলানা ওবায়দুল্লাহ (৪৮) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১ মুন্সীগঞ্জ।
মঙ্গলবার( ১১ মে) রাত সোয়া ১০ টার দিকে সিরাজদিখান উপজেলার কুচিয়ামারা কলেজ গেইট এলাকায় সিরাজদিখান থানার ০৮ টি ভাংচুর ও নাশকতা মামলার এজাহার নামীয় আসামী মাওলানা ওবায়দুল্লাহ (৪৮)কে গ্রেফকার করা হয়। ধৃত আসামী মাওলানা ওবায়দুল্লাহ (৪৮) সিরাজদিখান উপজেলার গকুলনগর গ্রামের আঃ হামিদের ছেলে।
র‌্যাব-১১ এক প্রেসরিলিজের মাধ্যমে জানান, ১১ মে
রাত আনুমানিক সোয়া ৯ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিরাজদিখান থানাধীন কুচিয়ামারা কলেজ গেইট এলাকায় সিরাজদিখান থানার ০৮ টি ভাংচুর ও নাশকতা মামলার এজাহার নামীয় আসামী অবস্থান করছে তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১, সিপিসি-১ এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার সিনিঃ সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আবু ছালেহ এর নেতৃত্বে একটি চৌকস আভিযানিক দল রাত সোয়া ১০ টার সময় ঘটনা স্থলে পৌছে মামলার এজাহার নামীয় আসামীকে মোবাইল ফোন সহ গ্রেফতার করা হয়।
ধৃত আসামীর বিরুদ্ধে সিরাজদিখান থানার মামলা নং-১(০৪/২১, মামলা নং-২(০৪/২১, মামলা নং-৩,৪ ও ৫(০৪/২১, মামলা নং-৬(০৪/২১, মামলা নং-৭ ও ৮(০৪/২১,ধারা-১৪৩/১৪৭/১৪৮/১৪৯/৪৪৭/৪৪৮/৩৮০/৪২৭/৫০৬/১১৪ পিসি এর আসামী।
মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, আসামী গত ২৮/০৩/২০২১ ইং তারিখে হেফাজত ইসলামের হরতাল চলাকালীন সময়ে সিরাজদিখান থানাধীন নীমতলার নিকটস্থ বড় শিকারপুর ও আশপাশের এলাকায় বেআইনী ভাবে দলবদ্ধ হয়ে মারাত্মক অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বাদীর ঘরবাড়িতে ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ ও নাশকতার ঘটনা সংঘটিত করে। উল্লেখ্য যে, বর্ণিত আসামী সিরাজদিখান থানার হেফাজত ইসলামের সভাপতি।
উক্ত আসামীর বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সিরাজদিখান থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *