মো.সোহেল রানা, মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ মুন্সিগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীতে ইউনিয়ন পরিষদের সহকারী উদ্যোক্তাকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় ছিনতাইকারী চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ।

শনিবার (২০ নভেম্বর) রাতে ঢাকা ও মুন্সিগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- মো. নাজির হোসেন ওরফে নাজিম মোড়ল, মো. ফয়সাল ওরফে জুয়েল ও মো. মিলন। তিনজনই লৌহজং উপজেলার মশদগাঁওয়ের বাসিন্দা। তাদের কাছ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত দুটি চাকু, লাইটার পিস্তল ও একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে।

রোববার (২১ নভেম্বর) দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন।

তিনি বলেন, হত্যার ঘটনায় মামলার পর থেকেই থানা পুলিশ ও জেলা গোয়েন্দা শাখার কয়েকটি টিম একসঙ্গে কাজ করে। প্রযুক্তির সহায়তায় ঢাকা ও মুন্সিগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের আদালতে সোপর্দ করা হবে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, তারা মূলত ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে ঘটনাটি ঘটিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ব্যাংক থেকে ফেরার পথে বারেক শেখকে (৪৪) এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় যেসব অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে তার সবগুলোই উদ্ধার করা হয়েছে। এর আগেও চক্রটি ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড করেছে।

এর আগে, গত ৭ নভেম্বর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ব্যাংক থেকে ফেরার পথে টঙ্গীবাড়ী উপজেলার বলই এলাকায় বালিগাও-টঙ্গীবাড়ী সড়কে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয় বারেক শেখকে। নিহত বারেক ময়মনসিংহ জেলার মোস্তফা শেখের ছেলে। তিনি হাসাইল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সহকারী উদ্যোক্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন। হত্যাকাণ্ডের দিনই নিহতের পিতা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন।

Leave a Reply