গৃহবধূকে নির্যাতন

শেখ মো. সোহেল রানা, মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ
মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে যোতুকের দাবিতে গৃহবধূকে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। নির্যাতিতা নারী এ নির্যাতনের অভিযোগ দায়ের করেন লৌহজং থানায়।

জানা যায়, লৌহজং উপজেলার বেজগাও ১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা রামকানু মন্ডল। তাঁর মেয়ে মালা রাণী মন্ডলকে ২০১৬ সালে বিয়ে দেন শ্রীনগর উপজেলার ভাগ্যকূল ইউনিয়নের নাগরনন্দি গ্রামের সম্ভু সরকারের ছেলে জয়ন্ত সরকারের সাথে। বিয়ের কিছুদিন পর মালার কাছে ব্যবসার কথা বলে তার পরিবার থেকে ৫ লাখ টাকা আনতে বলে। এবং মালা এ বিষয়টি তার বাবাকে বললে মালার বাবা ৫ লাখ টাকা অনেক কষ্ট করে জোগাড় করে দেন। বিয়ের দুই বছর পরে আবারও মালাকে টাকা আনতে বলে স্বামী জয়ন্ত সরকার ও শ্বশুর-শ্বাশুড়ি। কিন্তু এবার মালা টাকা না দিতে পারায় মালার উপর মালার স্বামী, শ্বশুর, শ্বাশুড়ি ও দেবর নির্যাতন শুরু করে। এক পর্যায়ে মালাকে বাবার বাড়ি দিয়ে যায় বাবার বাসায় দিয়ে যাওয়ার তিনবছর পেরিয়ে গেলেও মালা ও তার সন্তানের ভরণপোষণ দেননি স্বামী। বহুবার স্বামী ও শ্বশুড়-শ্বাশুড়ির সাথ বলেও যেতে পারেনি স্বামীর বাড়িতে। তাই বাধ্য হয়ে গতকাল মঙ্গলবার দুপুুুরের লৌহজং থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন মালা।

মালা রাণী জানান, কোন স্ত্রী তার স্বামীর বিরুদ্ধে যায় না। থানা পুলিশ তো দূরের কথা। আমি আজ অসহায় হয়ে আইনী সহায়তা নিতে আসছি। আমার একটি মেয়ে সন্তান আছে। আমাকে আমার স্বামী তিন বছরের বেশি হলো বাবার বাসায় রেখে গিয়েছে। ভরনপোষণ তো দূরের কথা খোঁজ খবর পর্যন্ত নেয় না। সে সাথে ফোনে বা অন্য কোনভাবে যোগাযোগ করলে টাকা নিয়ে যেতে বলে। তিনি আরও জানান মেয়ে সন্তান ও টাকার জন্য আমার স্বামী ও তার পরিবার আমার সাথে এরকম করছে।

এ বিষয়ে লৌহজং থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলমগীর হোসাইন জানান, দুপুরে এ বিষয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন মালা রাণী। আমরা পাশের উপজেলায় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করে এ বিষয়ে আইনী প্রদক্ষেপ নিবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *