অনলাইন ডেস্ক
ম্যাচটা ছিল প্রতিশোধের। কদিন আগেই যে ইন্টার মিলানের কাছে হারতে হয়েছে। এবারো ম্যাচেই শুরুতেই এগিয়ে গিয়েছিল ইন্টার, তবে শেষ রক্ষা হয়নি। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জোড়া গোলে মধুর প্রতিশোধ নিয়েছে আন্দ্রে পিরলোর দল। সঙ্গে ইতালিয়ান কাপের ফাইনালের পথে এক ধাপ এগিয়ে গেল জুভেন্টাস।

ইন্টারের মাঠ সান সিরোয় মঙ্গলবার (০২ ফেব্রুয়ারি) রাতে সেমি-ফাইনালের প্রথম লেগে ২-১ গোলে জিতেছে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা। আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি জুভেন্টাস স্টেডিয়ামে হবে দ্বিতীয় লেগ।

নবম মিনিটে এগিয়ে যায় ইন্টার। নিকোলো বারেল্লার চমৎকার স্কয়ার পাস ধরে জিয়ানলুইজ বুফনকে ফাঁকি দেন লাউতারো মার্টিনেজ। সোমবার কন্যা সন্তানের বাবা হওয়া আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের সৌজন্যে ঘরের মাঠে ইন্টারের শুরুটা হয় দারুণ।

১৬ দিন আগে সেরি আর ম্যাচে মিলানের এই দলটির বিপক্ষে হেরে যাওয়া জুভেন্টাস যেন জেগে ওঠে পিছিয়ে পড়ার পর। ২৬তম মিনিটে সফল স্পট কিকে সমতা টানেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

হুয়ান কুয়াদরাদোকে অ্যাশলি ইয়াং মৃদু টান দিলে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে পেনাল্টি দেন রেফারি। ফেদেরিকো বের্নারদেস্কির ক্রসও ছিল কুয়াদরাদোর নাগালের সম্পূর্ণ বাইরে।

৩৫তম মিনিটে সফরকারীদের এগিয়ে নেন রোনালদো। ডিফেন্ডার আলেস্সান্দ্রো বাস্তোনি ও গোলরক্ষক সামির হান্দনোভিচের ভুল বোঝাবুঝির সুযোগ কাজে লাগিয়ে ফাঁকা জালে বল পাঠান এই পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে বাড়তে পারতো ব্যবধান। বের্নারদেস্কির শট এক জনের গায়ে লেগে দিক পাল্টে চলে যাচ্ছিল জালে। তবে দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন ইন্টার গোলরক্ষক।

খানিক পরে গোল লাইন থেকে আলেক্সিস সানচেসের শট ফিরিয়ে জুভেন্টাসের ত্রাতা তুর্কি ডিফেন্ডার দেমিরাল। ৬৮তম মিনিটে সুযোগ আসে মাত্তেও দারমিয়ানের সামনে। নিজের ১১০০তম ম্যাচে দুর্দান্ত এক সেভে খুব কাছ থেকে তার চেষ্টা ব্যর্থ করে দেন বুফন।

বাকি সময়ে জুভেন্টাসকে প্রবলভাবে চেপে ধরলেও ঘরের মাঠে হার এড়াতে পারেনি আন্তোনিও কন্তের দল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *