সোহেল রানা,যশোর প্রতিনিধিঃযশোরের বাঘারপাড়ার কলেজছাত্র শিমুল হত্যায় জড়িত অভিযোগে পাঁচ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (১৯ জানুয়ারি) গভীর রাতে বাঘারপাড়ার উপজেলার দোগাছি গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন নিজ কার্যালয়ের এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

আটকরা হলেন বাঘারপাড়া উপজেলার দোগাছি গ্রামের সৌমিত্র গোলদার (২০), তার ভাই অমিত গোলদার (২২), লক্ষীকান্ত গোলদার (৪০), কৃষ্ণপদ বিশ্বাস (৫০) ও কৃষ্ণ বিশ্বাস (২৭)।

পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন জানান,গত (১৭ জানুয়ারি) বাঘারপাড়া উপজেলার রঘুরামপুর বেজিগাড়া মাঠের খাল থেকে শিমুল বিশ্বাসের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই ঘটনায় তার বাবা মুকুল বিশ্বাস হত্যার অভিযোগে দুই জনকে আসামি করে বাঘারপাড়া থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর মামলাটি তদন্ত করতে ডিবি পুলিশকে নির্দেশনা দেওয়া হয়। তারা শিমুল বিশ্বাসের মোবাইলের কললিস্ট চেক করে তার প্রতিবেশী এজাহারনামীয় আসামি সৌমিত্র গোলদার ও অমিত গোলদারকে আটক করা হয়। তারা হত্যার দায় স্বীকার করেছে।একইসঙ্গে হত্যায় জড়িত আরও তিন জনের বিষয়ে তথ্য দেয়। এরপর পুলিশ লক্ষীকান্ত গোলদার, কৃষ্ণপদ বিশ্বাস ও কৃষ্ণ বিশ্বাসকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতাররা জানিয়েছে, শিমুলকে নিয়ে তারা রঘুরামপুর মন্দিরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দেখতে যায়। সেখান থেকে ফেরার পথে পূর্বের বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। সৌমিত্র গোলদার একপর্যায়ে শিমুলের গলাটিপে ধরে হত্যা করে। এসময় অন্যরা তাকে সহায়তা করে। এরপর মরদেহ গুম করার উদ্দেশ্যে রঘুরামপুর বেজিগাড়া মাঠের খালের মধ্যে ফেলে আসে।পুলিশ সুপার আরও জানান, মঙ্গলবার গ্রেফতারদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *