সোহেল রানা,যশোর প্রতিনিধিঃ
যশোরের শার্শার নাভারণ- গোড়পাড়া সড়কের গাতিপাড়া খেয়াঘাট নামকস্থানে নির্মিত ব্রীজটি ভেঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে পড়ে আছে অযত্ন অবহেলায়। এলাকার প্রায় ১০ হাজার মানুষের যাতায়াতের জরাজীর্ণ এ ব্রীজটি এখন হয়ে উঠেছে ঝুঁকিপূর্ণ। যে কোন সময় ঘটতে পারে মারাত্মক দূর্ঘটনা ও প্রাণহানির মত ঘটনা। সরকারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে এলাকাবাসির দাবি অতি দ্রুত ব্রীজটি পূর্ণ নির্মাণ হলে এলাকার ব্যস্থতম রাস্তা দিয়ে যাতায়াত ও মালামাল আনা নেওয়া কষ্ট লাঘব হবে।

শার্শা উপজেলার ব্যস্ততম গ্রামীণ সড়ক নাভারণ-গোড়পাড়া। এ সড়কপথে এলাকার প্রায় ১০ হাজার মানুষের উৎপাদিত ফসল নিয়ে নাভারণ বাজারে আসা যাওয়া করতে হয়। প্রায় এক বছর ধরে এ সড়কের গাতিপাড়া খেয়াঘাট নামক স্থানে খালের উপর নির্মিত পুরাতন ব্রীজটির উপরের অংশ ভেঙ্গে যাতায়াতের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। ঢালাই ধ্বসে ভেতরের রডগুলো বের হয়ে আছে এবং অল্প জায়গা অবশিষ্ট রয়েছে। স্থানীয়রা কোনমতে বাঁশের খুঁটির উপর কাঠ দিয়ে অস্থায়ীভাবে চালা দিয়ে কোনমতে নিরাপত্তাহীনভাবে রিক্সা, ভ্যান, ইজিবাইক, সিএনজিসহ ছোট ছোট যানবাহন চলাচল করে। এলাকার উৎপাদিত ফসল ১২ কি.মি. ঘুরে বাজারে নিতে হয়। ভ্যান ইজিবাইক উল্টে অনেকে হয়েছে আহত। যে কোন সময়ে ব্রীজটি ভেঙে ঘটতে পারে বড় ধরণের কোন দূর্ঘটনা।

ব্রীজটি অতি দ্রুত মেরামত করে সড়কে চলাচলকারী যানবাহন এবং স্থানীয় জনসাধারণের সমস্যা সমাধানে কর্তৃপক্ষ দ্রুত পদক্ষেপ নেবে এমনটাই আশা করেন এলাকাবাসী ও সচেতন মহল।

এ ব্যাপারে শার্শা উপজেলা প্রকৌশলী এম এম মামুন হাসান বলেন, ব্রীজটি ঝুকিপূর্ণ হওয়ায় এ প্রতিবেদন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ করা হয়েছে। বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে ব্রীজটি নতুন করে নির্মাণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *