নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
আমরা যাঁরা ৮০-৯০ এর দশকে বড় হয়েছি, তাদের কাছে রহস্য রোমাঞ্চ উপন্যাস মানেই সত্যজিৎ রায়, শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়, সৈয়দ মোস্তফা সিরাজ, নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়, রকিব হাসান, কাজী আনোয়ার হোসেন। কারণ এনারা, বিশেষ করে সত্যজিৎ রায় এবং সৈয়দ মোস্তফা সিরাজ একটা মানদণ্ড রেখে গেছেন যে রহস্য রোমাঞ্চ উপন্যাসে শুধু রহস্য নয়, সাথে এডভেঞ্চারও থাকতে হবে। না হলে ঠিক বাঙালির আদি অকৃত্রিম থ্রিলটা আসে না।
কিন্তু এখনকার রহস্য রোমাঞ্চ উপন্যাস মানেই বিদেশি উপন্যাসের অর্বাচীন অনুবাদ এবং অনুকরণ।
আমি আজকে যে বইটির রিভিউ করবো সেটি অবশ্যি বলা যায়, Old wine in a old bottle! একেবারেই ভিন্ন ধরনের একটি রহস্য রোমাঞ্চ উপন্যাস।
আজকে আমি রিভিউ করবো তরুণ লেখক শাহ্ নেওয়াজ জয় এর লেখা রহস্য রোমাঞ্চ উপন্যাস
” লোথিয়ান দ্বিপের রহস্য ” বইটির। শাহ্ নেওয়াজ এর জন্ম ১৯৮৭ সালের ৩১শে মে, রাজশাহী জেলায়।
২০১০ সালে ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করে তিনি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চাকরি নেন। ২০১৩ সাল থেকে তিনি ব্লগে গল্প এবং কবিতা লেখা দিয়ে সাহিত্য চর্চা শুরু করেন। ২০১৪ রিসার্চ এবং উচ্চ শিক্ষার উদ্দেশ্যে মালেশিয়া গমন করেন। দেশে ফিরে লেখক হিসেবে প্রথম আত্মপ্রকাশ ২০২০ সালের একুশে বই মেলায়, তাঁর লেখা গল্প সংকলন “আলো আঁধারের অলকগুচ্ছ ” নামক বিভিন্ন ধরনের একগুচ্ছ ছোট বড় গল্প দিয়ে।
“লোথিয়ান দ্বিপের রহস্য” উপন্যাসটি প্রকাশিত হয় এবছর বই মেলায় অক্ষরবৃত্ত প্রকাশনী থেকে।

লোথিয়ান দ্বীপ, পশ্চিম বঙ্গের ২৪ পরগণা জেলার বকখালির একটি দ্বীপ। সেই দ্বীপের রহস্য। নাম শুনেই রহস্য এবং এডভেঞ্চারের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। কিন্তু গল্পের শুরুতেই একটা বড় ধরনের ধাক্কা, গল্প শুরু হয়েছে চল্লিশের দশক, যখন চারদিকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের দামামা। ঘটনার শুরু কলকাতা শহর।মহসিন নামের একজন মেধাবী তরুন, খুলনার দরিদ্র পরিবার থেকে এসেছে কলকাতায়। সে সকালে ব্রিটিশ সরকারের ট্যাক্স অফিসে কাজ করে।বাড়তি কিছু আয়ের জন্য সে সাংবাদিকতা করে সন্ধ্যা বেলা ফজলুল হক সাহেবের নবযুগ পত্রিকায়। পত্রিকার কাটতি বাড়াতে সম্পাদক তাকে এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদন তৈরি করতে বলেন।

কলকাতার ধনী লোহার ব্যবসায়ী রাম মোহন ডালমিয়া এর একমাত্র ছেলে বিলেত ফেরত ডঃ মাখন লাল ডালমিয়া একজন রহস্যময় ব্যাক্তি। জীবনের দীর্ঘ সময় রাশিয়া, পেরু ঘুরে ফিরে এসেছেন কলকাতায়। তবে শহরে নয় কলকাতা থেকে দূর দ্বীপে এক পরিত্যাক্ত ওলন্দাজ দুর্গ কিনে নিয়ে সেখানে থাকেন, দ্বীপের নাম লোথিয়ান দ্বীপ। তাঁর সম্পর্কে তথ্য জোগাড় করতে করতে সাংবাদিক মহসিন গিয়ে হাজির হন সেই রহস্যময় বুনো দ্বীপে। ঘটতে থাকে রহস্যময় এবং রোমাঞ্চ সব ঘটনা।

রহস্য রোমাঞ্চ, এডভেঞ্চার এবং তার সাথে যোগ হয়েছে শিকার। এক নিঃশ্বাসে পড়ে ফেললাম লেখক শাহ্ নেওয়াজ জয়ের দ্বিতীয় উপন্যাস। লেখকের রয়েছে এক্কেবারে প্রথম পাতা থেকে শেষ পর্যন্ত পাঠক ধরে রাখা অসাধারণ মুন্সিয়ানা। তার প্রমাণ অবশ্যি তিনি আগেও দিয়েছেন। কিন্তু এবার থ্রিলার উপন্যাস। থ্রিলার পাঠকদের লেখাটা ভালো লাগবে, একেই তো থ্রিলার, তার উপর গল্পের প্লট চল্লিশ দশক। সেই সময়ের আর্মস্ট্রং গাড়ি, পাসিং শো সিগারেট, সেসময়কার জীবনযাত্রায় আপনি ঢুকে যাবেন একদম প্রথম পাতা থেকেই।

শাহ নেওয়াজ জয়ের সাবলীল লেখনীতে চোখের সামনে ভেসে উঠবে প্রতিটি চরিত্র ও দৃশ্যপটের পুঙ্খানুপুঙ্খ বর্ণনা , মনে হবে যেন একটা ওয়েব সিরিজ দেখছেন।

বৈশাখী অফারে সংগ্রহ করে নিতে পারেন বইটি ৫০% ছাড়ে অক্ষরবৃত্ত প্রকাশনী থেকে আজই।
এছাড়াও ইতিমধ্যে বইটি রকমারি ডটকম এর বেস্ট সেলার লিস্টে জায়গায় করে নিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *