রাশিদুল ইসলাম,গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধিঃ

দু চোখ জুড়ে কতো স্বপ্ন ছিলো সামনে ঈদে অনেক যত্নে লালন পালন করা মহিষ দুটি বিক্রি করলে পরিবারের স্বচ্ছলতা ফিরবে। কিন্তু সেই আশা আর পূরণ হলো না।শেষ সম্বল বলতে ছিলো দুটি মহিষ সেটাও নিয়ে গেল চোরে।এমন এক চুরির ঘটনা ঘটেছে নাটোরের গুরুদাসপুরে কৃষক কালাম মন্ডলের বাড়িতে।তার শেষ সম্বল দুইটি মহিষ নিয়ে গেছে চোরে।

গত (১৪ জুলাই ) রাত ৩টার দিকে উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের বেড়গঙ্গারামপুর গ্রামের এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক কালাম মন্ডল গুরুদাসপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক কালাম বলেন, দুইটি মহিষ ছিল আমার শেষ সম্বল। ২ বছর ধরে লালন পালন করেছি। কোরবানীর হাটে ওই মহিষ বিক্রি করে সংসারে স্বচ্ছলতা আনার আশা ছিলো। কিন্তু বাড়ির গোয়াল ঘরে মহিষ দুটি বেঁধে রেখে পরিবারসহ রাতে ঘুমিয়ে পড়লে হঠাৎ গাড়ির শব্দ পাই। মহিষের ঘরে গিয়ে দেখি মহিষ নেই। রাস্তায় গিয়ে দেখি ট্রাকে করে কয়েকজন মহিষ নিয়ে যাচ্ছে। ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন বেরিয়ে এসে ট্রাকটিকে আটকানোর চেষ্টা করেও ধরা যায়নি। মহিষ দুটির বাজার মুল্য ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা হতো।

তিনি আরো জানান, তার এক মহিষের গায়ের রং-কালো, দুইটি মাঝারী শিং, দাঁত চারটি, লেজের গোফ কালো, অপর মহিষের গায়ের রং কালো, শিং দুইটি মাঝারী, দাত নেই, লেজের গোফ কালো।

এ বিষয়ে গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) মোঃ আব্দুর রাজ্জাক জানান, অভিযোগ পেয়েছি। মহিষ দুইটি উদ্ধারের তৎপরতা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *