লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুর রামগঞ্জ উপজেলাতে যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হাবিবুর রহমান পবন নৌকায় ওপেনে ভোট দেওয়ার হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, মেম্বার প্রার্থী যারা আছেন, তাদের যদি সফিক ভাই সমঝোতা করে দিতে পারেন তাহলে গুড। না হলে আপনারা আপনাদের মতো ভোট কইরেন।
কিন্তু মাইন্ড ইট নৌকার ভোট ওপেনে দিতে হবে। মেম্বারী যেই করেন, ওই গোপনে আপনাদের যেই ভোট দিক আমাদের কোন অসুবিধা নেই। কেউ কাউকে ডিস্টার্ব করবেন না। কিন্তু নৌকাকে ওপেনে রাইখা ভোট দিতে হবে। এর বাইরে কোন কথা নেই। আর যদি মনে করেন আপনি বঙ্গবন্ধুর নীতি আদর্শ বিশ্বাস করেন না, তাহলে আপনার রাস্তা আপনি দেখতে পারেন। আপনারতো আর ভোটের দিন কোন কাজ নেই। কারণ আপনার ভোট অন্তর্গত হইতাছে না’।
রোববার (৭ নভেম্বর) রাতে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ভাদুর ইউনিয়নে পৈতপুর গ্রামে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সফিকুল ইসলামের বাড়িতে যুবলীগ নেতা পবন এসব কথা বলেন। এসময় আওয়ামী লীগ নেতা সফিকুল ইসলাম ও আওয়ামী লীগ মনোনীত (নৌকা) ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী জাবেদ হোসেনসহ মেম্বার প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
সোমবার (৮ নভেম্বর) পবনের বক্তব্যের ৪ মিনিট ২১ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। যুবলীগ নেতা পবন আরও বলেন, আমাদের আদর্শ বঙ্গবন্ধু। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা। উনার সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। উনার বাইরে কোন কথা চলবে না। মানুষ হিসেবে আমাদের সকলেরই পছন্দ অপছন্দ থাকাটা স্বাভাবিক আর না থাকাটা অস্বাভাবিক। কিন্তু আমরা একটি সংগঠন করি, একটি আদর্শে বিশ্বাস করি। মাননীয় নেত্রী যখন নৌকার জন্য একজন প্রার্থীকে মনোনীত করেছেন। তারপরে আমাদের কোন ব্যক্তির ওপর পছন্দ বা ভালোবাসা কিছু নেই। তা এখানেই শেষ হয়ে গেছে। কিছু মুনাফেক এ সংগঠনের নাম বেছে অতীতে সকল সুযোগ সুবিধা গ্রহণ করেছে। তারা ব্যক্তি স্বার্থের জন্য আজকে দলের বিরুদ্ধাচারণ করতেছে। তারা কারা আপনারা সকলেই জানেন।
রামগঞ্জ উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা আবু তাহের জানান, প্রতীক বরাদ্দের আগে ভোট চেয়ে প্রচারণা চালানো নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন। ভাদুরের আওয়ামী লীগের প্রার্থীর প্রচারণা ও যুবলীগ নেতার বক্তব্যের বিষয়ে কেউ আমাকে জানায়নি। প্রতীক বরাদ্দের সময় প্রার্থীদেরকে দিকনির্দেশনা দিয়ে দেওয়া হবে। তখন আচরণবিধি অক্ষুন্ন রাখতে ম্যাজিষ্ট্রেটসহ আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীকে দায়িত্ব দেওয়া হবে। প্রতীক বরাদ্দের আগে কেউ প্রচারণা করলে তাকে জানানোর পরামর্শ দেন তিনি।
প্রসঙ্গ, ২৮ নভেম্বর ভাদুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী জাবেদ হোসেন ছাড়া বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহিদ হোসেন ভূঁইয়া। ১২ নভেম্বর প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে। প্রতীক বরাদ্দের আগেই নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে সরকার দলীয় প্রার্থীরা মার্কা সম্বলিত ব্যানার পেস্টুন ছাপিয়ে ভোট চাইছেন ও গণসংযোগ করছেন

Leave a Reply