বিশেষ প্রতিনিধিঃ
লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার রামগতি বাজার সংলগ্ন ৮ নং বড়খেরী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম মোর্তজা হোসেন চৌধুরীর চাষকৃত পুকুরে বিষ দিয়ে লক্ষাধিক টাকার মাছ নিধন করেছে তারই চাচাতো ভাই আফতাব উদ্দিন চৌধুরী, পিতা-মৃত মাহমুদ হোসেন চৌধুরী।
০৫-৫-২১ ইং বুধবার দিবাগত রাতে ৮ নং বড়খেরী ইউনিয়নে এই ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার সকালে এলাকার সকল মানুষ এরকম একটা জঘন্য ঘটনা দেখতে ভীর জমায়।

মরহুম মোর্তজা হোসেন চৌধুরীর পুকুরে রুই, কাতল,পাঙ্গাশ,তেলাপিয়াসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করে আসছিল। বিষ প্রয়োগের ফলে বুধবার রাত থেকে পুকুরের বিভিন্ন প্রজাতির মাছ মরে ভেসে উঠে।
এসময় মরহুম মুর্তজা চৌধুরীরর ছোট ছেলে রিশাদ চৌধুরী বলেন,
ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের আমি একজন সদস্য, আমি মরহুম মুর্তজা হোসেন চৌধুরীর ছোট ছেলে। ঘটে যাওয়া সকল ঘটনা আমি ফোনের মাধ্যমে জানতে পেরে,আমি ঢাকা থেকে আইনি সহায়তার জন্য
৯৯৯ ফোন করি উনারা আমাকে, আমার রামগতি থানার এস.আই রাসেল স্যারের সাথে কথা বলিয়ে দেন।
স্যার আমার বিষয়টি শুনে ঘটনাস্থলে গিয়ে আলামত সংগ্রহ করেন।

আমাকে চাকরির কারনে ঢাকায় থাকতে হয় দেখা যায় শুধুমাত্র ২ ঈদে বাড়িতে যাওয়া হয়।
আমি এবং আমার বড় ভাই দুইজনই ঢাকাতে থাকি। আফতাব উদ্দিন চৌধুরী আমাদের দুই ভাইকে, গত এক বছর যাবত প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসতেছে সেই শত্রুতার জের ধরেই,বুধবার দিবাগত রাতে আমার বাবার চাষকৃত পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে পুকুরের সব মাছ মেরে ফেলে এতে আমাদের লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে।

আমি মরহুম মোর্তজা হোসেন চৌধুরীর
ছোট ছেলে রিশাদ চৌধুরী প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করে বলেন, রামগতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহোদয় ও রামগতি থানা অফিসার ইনচার্জ সোলাইমান স্যারের সুদৃষ্টি কামনা করছি।
স্যার মহোদয়গণ আপনাদের কাছে আমার বিনীত অনুরোধ,আপনারা এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করিবেন ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *