ম.ম.রবি ডাকুয়া,বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ
সুন্দরবনের পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের ধানসাগর স্টেশনের টহল ফাঁড়ি এলাকায় অগ্নিকান্ডের খবর পাওয়া গেছে।সুন্দরবনে রেড এলার্টের পর এ ধরনের অগ্নিকান্ডে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।সোমবার ৮ ফ্রেব্রুয়ারী দুপুরে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।প্রায় সাড়ে চার ঘন্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয় সংশ্লিষ্ট বিভাগ।পুড়ে গেছে প্রায় ৩ শতাংশ বনভূমি এলাকা।
ধানসাগর স্টেশন কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম জানায়,আনুমানিক দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে আগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটলে বনের সিপিজে সদস্য সোলায়মান হোসেনের চোখে পড়ে ধোয়ার কু্ন্ডলি।এর পর পর আগুন নেভানোর চেষ্ট করে ব্যর্থ হলে ফায়ার সার্ভিসকে খবল দেয়া হয়।ফায়ার সার্ভিস এসে চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।ততক্ষনে প্রায় এক কিলোমিটারের মধ্যে তিন শতাংশ জমির গাছপালা পুড়ে ছাঁই হয়ে যায়।তবে ঘটনা স্থলের বড় কোন গাছ পালার তেমন ক্ষতি হয়নি বলে জানান এই কর্মকর্তা।
বিড়িসিগারেটের পরিত্যক্ত অংশ থেকে আগুন লাগার প্রাথমিক দাবি করে আসছেন বন বিভাগ।এবং অসংলগ্ন বক্তব্য দিয়ে আসছে তারা।তবে এটা উর্ধতন কর্মকর্তাদের ভাবাতে হবে হঠাৎ সুন্দরবনে রেড এলার্ট জারির কয়েকদিনের মাথায় আগুন।এর অধিক তদন্ত হওয়া দরকার।
শরণখোলা ফায়ার সার্ভিসের বক্তব্য মতে,বন বিভাগের খবরে তারা ঘটনা স্থলে ছুটে আসে।এবং প্রায় দুই ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয় তারা।তারা জানায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে তাদের বেশ বেগ পেতে হয়েছে বনে গাছের পাতা পড়ে দেড় ফুটের মত স্তর তৈরী হয় যে কারনে মাঝে মাঝে আগুন আবার জ্বলে উঠছে।
কিছু বন কর্মকর্তা ও স্থানীয়দের মতে স্থানীয় কিছু উশৃংখল ছেলে বনের মধ্যে প্রবেশ করেছিল তাদের এ কাজ হতে পারে।তবে রেড এলার্ট চলাকালে এ ধরনের অনুপ্রবেশ ও অগ্নিসংযোগ পরিবেশ বিদদেরভাবিয়ে তুলছে ।
পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের কর্মকর্তা (ডিএফও) মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন জানান,আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রনে এসেছে। উক্ত এলাকায় বনরক্ষিদের নজরদারি আরো বাড়ানো হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *