লক্ষ্মীপুরের আব্দুল মতিন, লেখাপড়া করেছেন প্রথম শ্রেণী পর্যন্ত। কিন্তু নিজেকে পরিচয় দেন প্রধানমন্ত্রীর পিএস-১ হিসেবে। এমন পরিচয় দিয়েই সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে, আর্থিক প্রতিষ্ঠানে রুপ পাল্টিয়ে নানা মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিলো সে। এছাড়া বিকাশের মাধ্যমে অর্থ আদায় করে হাতিয়ে নিয়েছেন লাখ লাখ টাকা। অবশেষে জাল টাকা ও ইয়াবাসহ র‌্যাবের হাতে আটক হয়েছে এ প্রতারক।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) দুপুর ১২ টায় লক্ষ্মীপুর জেলা স্টেডিয়ামের র‌্যাব ক্যাম্পে প্রেস ব্রিফিংয়ের আয়োজন করে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানায় র‌্যাব-১১। গত রোববার (১৮ এপ্রিল) লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার চরগাজী ইউনিয়নের চর আফজাল গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

র‌্যাব জানায়, প্রতারণার পশাপাশি মতিন জাল টাকা ও মাদক ব্যবসার সঙ্গেও জড়িত।

র‌্যাব-১১ সিপিসি-৩ এর লক্ষ্মীপুর ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার মো. শামীম হোসেন জানান, রামগতির চর আফজাল গ্রামের মৃত আব্দুর রবের ছেলে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছে। নিজের দুটি এন.আই.ডি কার্ড তৈরী করে প্রধানমন্ত্রীর এপিএস পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন নাম-ঠিকানা ব্যবহার করে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে প্রতারণার মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যাক্তির কাছ থেকে অর্থ আদায় করে আসাছিল মতিন। তার কোন বৈধ পেশা নেই। সে একজন প্রতারক, জাল টাকা ও মাদক ব্যবসায়ী।

এমন খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এসময় তার বসত ঘর থেকে ৫০ পিচ ইয়াবা, ১ লাখ ৩৯ হাজার টাকা মুল্য মানের জাল টাকার নোট, প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ২টি সীল, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ১০টি ভূয়া প্যাাড, ২টি খাম, তার ও তার পিতার বিভিন্ন নামীয় আইডি কার্ডসহ অন্যান্য আলামত উদ্ধার করা হয়।

তার বিরুদ্ধে ৩টি মামলা দায়েরের প্রস্ততি চলছে। এছাড়া বিভিন্ন থানায় তার বিরুদ্ধে আরো ১২ টি মামলা রয়েছে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *