সোহেল হোসেন লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধিঃ

লক্ষ্মীপুর জেলা কারাগারে অস্ত্র মামলার ৫ আসামি এইচএসসি পরীক্ষা বসছেন। এরমধ্যে জালিস মাহমুদ নামে একজন বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) সকাল ১০টা থেকে কারাগারেই বসেই পদার্থ বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) প্রথমপত্র পরীক্ষা দিয়েছেন। অপর ৪ পরীক্ষার্থী ৫ ডিসেম্বর যুক্তিবিদ্যা পরীক্ষায় অংশ নেবেন। জালিস রামগঞ্জের সাউদেরখিল গ্রামের বাসিন্দা ও রামগঞ্জ মডেল কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের পরীক্ষার্থী। অন্যরা হলেন উপজেলার রতনপুর গ্রামের মোহাম্মদ তাইয়ুব, হাতিপুরের ইফতেখার আহমেদ ফয়সাল, দরবেশপুর গ্রামের তাহমুন হোসেন মামুন ও নোয়াগাঁওর ফজলে রাব্বি। তারা একই কলেজের মানবিক বিভাগের ছাত্র।
এই দিকে নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক দুইজন কলেজশিক্ষক জানান, ওই ছাত্রদের কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কক্ষে বসে পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তারা এখন কারাগারে পরীক্ষে দিচ্ছে। অসুস্থ রাজনীতি তাদের ভবিষ্যতকে অন্ধকারে ঠেলে দিল। তাদের কারাগারে যাওয়ার পেছনের নেতাদের আইনের আওতায় আনা উচিত।
লক্ষ্মীপুর কারাগারের জেলার শাখাওয়াত হোসেন বলেন, ৬ জন পরীক্ষার্থীই অস্ত্র ও বিস্ফোরক মামলার আসামি। এরমধ্যে একজন সকালে পরীক্ষায় বসেছে। জেল কোড নিয়ম মেনেই ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে পরীক্ষা হচ্ছে। বাকিদের পরীক্ষা ৫ ডিসেম্বর।
পুলিশ জানায়, নির্বাচন উপলক্ষে ২৭ নভেম্বর রাতে র‍্যাব-পুলিশ মধ্যভাদুর গ্রামের যুগী বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এতে পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বয়ক শাহ আলম সিদ্দিকী জীবন, ছাত্রলীগ নেতা পিজু ও ওই ৫ পরীক্ষার্থীসহ ৩১ জনকে বিভিন্ন অস্ত্রসহ আটক করা হয়।
রামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, অস্ত্রসহ আটক ৩১ জনের বিরুদ্ধে র‍্যাবের পক্ষ থেকে এজাহার দাখিল করা হয়। পরে তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তারা বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন।

Leave a Reply