সোহেল হোসেন লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি:
লক্ষ্মীপুরে প্রেমিকাদের নিয়ে দিনভর রিকশায় ঘুরে ভাড়া না দিয়েই কৌশলে প্রেমিক ইমন হোসেন ও মো. শুভ সটকে পড়ে। পরে রিকশা চালক আমির হোসেন ভাড়ার জন্য ওই প্রেমিকাদের বাড়ির সামনে যায়৷ ভাড়া চাইলে তরুণীরা তাদের প্রেমিকদের বিষয়টি জানান। এতে তারা (প্রেমিক) রিকশাচালককে মোবাইলফোনে শহরে ডেকে নেয়।
একপর্যায়ে ইমন ও শুভ টাকা দেওয়ার কথা বলে আমিরকে সদর উপজেলার লাহারকান্দি ইউনিয়নের খামার বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে পরিত্যক্ত একটি বিল্ডিংয়ে ১০-১২জন যুবক তাকে বেধড়ক মারধর করে। এসময় ছুরি দিয়ে তাকে জবাই করে হত্যাচেষ্টা চালায়। পরে আমির সবার হাত-পায়ে ধরে প্রাণ ভিক্ষা চায়৷ ঘটনাটি কাউকে না জানানোর হুমকি দিয়ে তারা আমিরকে শহরে নামিয়ে দিয়ে যায়।
এই ঘটনায় শুক্রবার (১২ নভেম্বর) বিকেলে সদর মডেল থানায় ইমন ও শুভর নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ১২ জনের বিরুদ্ধে আমির লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। তিনি লক্ষ্মীপুর পৌরসভার সমসেরাবাদ এলাকার মৃত সফিকুল ইসলামের ছেলে ও ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালক।
এরআগে বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় আমিরকে হত্যাচেষ্টা করা হয়। এসময় তার মুঠোফোন ও ৮০০ টাকা ছিনিয়ে নেয়া হয়। খবর পেয়ে স্বজনরা তাকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন।
অভিযুক্ত ইমন সমসেরাবাদ এলাকার রশিদ ডাক্তারের ছেলে ও শুভ একই এলাকার বাসিন্দা।
লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাটির তদন্ত চলছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply