সোহেল হোসেন লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে দুই ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন পিতা-পুত্র। উত্তর চর আবাবিল ও দক্ষিণ চর আবাবিল ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে এ প্রার্থিতা দাখিল করা হয়েছে।
দল থেকে মনোনয়ন চেয়ে না পাওয়ায় তারা স্বতন্ত্র হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বলে বুধবার দুপুরে জানিয়েছেন।
উত্তর চর আবাবিল ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী হয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. শহিদ উল্লাহ। প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাফর উল্লা দুলাল হাওলাদার ও তার ছেলে যুবলীগ নেতা মো. রাশেদুল ইসলাম।
দক্ষিণ চর আবাবিল ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে ভোট করছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক উপকমিটির সদস্য হাওলাদার নুরে আলম জিকু। স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন দল থেকে মনোনয়ন বঞ্চিত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. নাছির উদ্দিন বেপারি। তার ছেলে যুবলীগ নেতা মো. ফারুক হোসেনও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মঙ্গলবার বিকালে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।
চেয়ারম্যান পদে তাদের মনোনয়নপত্র দাখিল করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওই ইউনিয়নের রিটার্নিং অফিসার নূর মোহাম্মদ ও মো. হারুন মোল্লা। তারা আরও জানান, ১০টি ইউনিয়নে ৫১ জন চেয়ারম্যান পদে, ১০০ জন সংরক্ষিত নারী ও ৪৬০ জন ইউপি সদস্য পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ৪ নভেম্বর বাছাই, ১১ নভেম্বর প্রত্যাহার ও ২৮ নভেম্বর ভোট গ্রহণ করা হবে।
জাফর উল্লাহ দুলাল হাওলাদার বলেন, আমরা পিতা-পুত্র ভোট করার জন্য মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে জমা দিয়েছি। ভোটের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত আমরা মাঠে থাকব।
অপু হাওলাদার বলেন, আমি ভোট করতে নামিনি। মূলত আমার বাবাই ভোট করবেন। ভোটের দিন কেন্দ্রে যাতে বেশি এজেন্ট উপস্থিত রাখা যায় সেজন্যই প্রার্থী হয়েছি।
নাছির উদ্দিন বেপারি বলেন, ভোট করার জন্যই তো পিতা-পুত্র প্রার্থী হয়েছি। তারপরও প্রত্যাহারের দিন সিদ্ধান্ত নেব কে ভোট করব, আর কে করব না।
মো. ফারুক হোসেন বলেন, ভোট না করলে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা দিতাম না। ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্যই ফরম জমা দিয়েছি।

Leave a Reply