সোহেল হোসেন লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরের মো. মোহন ওরফে সুজন (১৫) নামে এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে জেলার সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নের চরভূতা গ্রামের একটি খালপাড় থেকে তার মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে।
স্থানীয়রা সকালে খালপাড়ে মৃতদেহটি দেখে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই কিশোরের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করে।
মোহন ব্যাটারীচালিত অটোরিকশার চালক ছিলেন। সে পার্শ্ববর্তী তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নের শহরকসবা গ্রামের আলাউদ্দিনের পুত্র। তার অটোরিকসাটি নিখোঁজ রয়েছে।
ধারনা করা হচ্ছে অটো রিকশা ছিনিয়ে নিতেই অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা তাকে হত্যা করে পালিয়েছে।
মোহনের মা খুকি বেগম জানান, তার ছেলে অটোরিকশা চালিয়ে প্রতিরাতে রাতে বাড়ি ফিরে যেত। কিন্তু রবিবার সন্ধ্যায় পর থেকে সে আর বাড়িয়ে ফিরে যায়নি। সকালে তার মৃতদেহ পাওয়ার খবর শোনেন তিনি। তার ধারণা, কেউ তার অটোরিকশা ছিনিয়ে নিতে তাকে হত্যা করেছে।
স্থানীয়রা জানায়, সকালে খাল পাড়ে লোকজন মোহনের মৃতদেহ দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। মোহন তার প্রতিবেশী শামছুলের অটোরিকশা ভাড়ায় চালাতো।
লক্ষ্মীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মো.জসিম উদ্দিন জানান,নিহত অটো রিকশা চালকের মরদেহ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হচ্ছে বলে জানান তিনি। এছাড়া প্রযুক্তি ব্যবহার করে নিখোঁজ অটোরিকশাটি উদ্ধার করা হবে বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply