ইকরামুল ইসলাম (যশোর প্রতিনিধি):
যশোরের শার্শা উপজেলার জিরেন গাছা গ্রামে রাতের আঁধারে মাটি কেটে বিক্রি করছে
একটি সংঘবদ্ধ জমি খেকোর দল।

১৫ থেকে ২০ ফুট পর্যন্ত গভীর করে রাতের আঁধারে মাটি বিক্রি করে ফয়দা লুটছে পাঁচ জনের এই দলটি। ফলে ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছে ভূমি। অবৈধভাবে মাটি কেটে পুকুর খনন করে ভাটায় বিক্রি করছে ভূমি খেকোরা।

সরেজমিনে তথ্য অনুসন্ধানে জানা যায়, জিরেনগাছা গ্রামের
মৃত্যু আব্দুর ছাত্তার মোল্লার ছেলে রবি আমিন সহ মোট পাঁচ জন ভূমি খেকো মিলে অবৈধভাবে মাটি কেটে পুকুর খনন করে মাটি বিভিন্ন ভাটায় বিক্রি করে টাকা রোজকারের পথ বেছে নিয়েছে।
বিরতিহীন ভাবে তারা এক সপ্তাহ ধরে মাটি কাটা ও বিক্রয়ের কাজ করে যাচ্ছে। অপরদিকে গ্রামীন কাঁচা ও পাকা রাস্তা গুলো কাঁদা ছিটিয়ে মানুষ ও যানবাহন চলাচলে চরম ঝুঁকির মধ্যে ফেলছে।

এলাকাবাসীরা বলেন, আমরা তাদের রাস্তার এই অবস্থার কথা বললে তারা পাত্তা দেয় না। রাস্তায় কাঁদা ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকার কারনে আমাদেরকে অনেক ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

কন্ট্রাক্টর ইমানুরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মাটি আমি একা কাটছি না আমার সাথে জিরেন গাছার তোতাও রয়েছে ।

এবিষয়ে মিডিয়া কর্মীরা তথ্য সংগ্রহে গেলে তিনি ও জমির মালিক রবি ও আমিন মোল্লা উত্তেজিত হয়ে বলেন, এটা আমাদের জমি আমরা কাটবো তাতে কার কি করার আছে করবে ।

শার্শা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাসনা শারমিন মিথি বলেন, মাটি কেটে বিক্রি করা সম্পূর্ণ আইন পরিপন্থী কাজ। অবৈধভাবে যে বা যাহারা মাটি কেটে বিক্রি করবে তাদেরকে আইনের মাধ্যমে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *