আব্বাস আলী. ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় গোবিন্দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষকের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। গত সোমবার দুপুরে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাজিবুল হাসান ও তার সহযোগিরা এ হামলা করে বলে বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছে সহকারী শিক্ষক সুজনুজ্জামান।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সুজনুজ্জামান বলেন, প্রধান শিক্ষক রাজিবুল হাসান স্লীপফান্ড, প্রাক-প্রাথমিকসহ বিদ্যালয়ের সরকারি বরাদ্দের টাকা অনিয়ম ও দূর্নীতির মাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে আত্মসাত করে আসছিল। এ বিষয়ে প্রতিবাদ করায় তার উপর প্রধান শিক্ষক ক্ষীপ্ত হয়ে ছিলেন। দুপুর হঠাৎ প্রধান শিক্ষক স্কুল সংলগ্ন এলাকার আফান নামের এক ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী ডেকে লাঠিসোটা দিয়ে তার উপর হামলা চালিয়ে বেধড়ক মারপিট করে আহত করে।

স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে শৈলকুপা হাসপাতালে ভর্তি করে। এ সময় আফরোজা নামের এক অভিভাবক ঠেকাতে গেলে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে লাঞ্চিত করে। তিনি আরো জানান, নানা অনিয়মের মধ্যে চলতে থাকা বিদ্যালয়টির অর্থনৈতিক তহবিলসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তদন্ত করলে প্রধান শিক্ষকের অর্থলোপাটের মুখোস উন্মোচন হবে।

অভিযুক্ত রাজিবুল হাসানের খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তিনি যোগদানের পর থেকেই প্রতিষ্ঠানের বেহালদশা, বিদ্যালয়টির লেখাপড়া নিয়েও নানা প্রশ্ন উঠেছে। স্থানীয় একাধিক অভিভাবক জানান, প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয় এলাকার স্থানীয় প্রভাবশালী হওয়ায় বেপরোয়া আচরণ করে থাকেন। কোন অনিয়মের প্রতিবাদ করলেই তার বিরুদ্ধে হুমকি-ধামকি ভয়ভীতি প্রদান করেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্কুল সংলগ্ন এক ব্যক্তি জানান, রাজিবুল হাসান পূর্ব থেকেই অর্থলোভী ও ফাঁকিবাজ শিক্ষক, গ্রামের ছেলে বলে তেমন কেউ কিছু বলেনা। এলাকাবাসীর দাবি অতি সত্বর গোবিন্দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে দূরে কোথাও বদলী করা প্রয়োজন।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ ইসরাইল হোসেন জানান, লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এক সপ্তাহের মধ্যে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। অভিযোগের প্রতিবেদন পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে শিক্ষকের উপর হামলার ঘটনা নেক্করজনক বলে তিনি মন্তব্য করেন।

Leave a Reply