শেখ মো.সোহেল রানা, মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ
মুন্সীগঞ্জ জেলা শ্রীনগরে যুবলীগ নেতা স্বপন রায়ের বিরুদ্ধে ভাতিজার জমি দখলসহ নানা অভিযোগ উঠছে। সরকারী খাসজমি দখলসহ ব্যাক্তি মালিকানা জমি দখলের অভিযোগ রয়েছে এ নেতার বিরুদ্ধে। এ নেতা শ্রীনগর উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি বনে গিয়ে অনেক হিন্দু পরিবারের উপর নির্যাতন করে আসছে।
স্থানীয় ভাবে জানা যায়, গত ১৯৯৮ সালে দলিল নং২৮১৭/৯৮ মুলে উপজেলার হরপাড়া গ্রামের শৈল বালা দেবনাথগংদের নিকট থেকে পশ্চিম দেউলভোগ মৌজার আর এস ২২৬ নং খতিয়ানের ৪৬৮ দাগের ৩৪ শতাংশ জমি ক্রয় করে যুবলীগ নেতা স্বপন রায় ও তার ভাই গোবিন্দ রায়। ২০১০-১১ সালে ১৬৯১ নং নামজারীও করে। উক্ত দাগে আর এস পর্চায় ৩৪ শতাংশ জমি থাকলে আর এস নকশায় অর্থাৎ ম্যাপে সরেজমিনে জায়গা আছে ২২ শতাংশ। কিন্তু যুবলীগ নেতা স্বপন রায় পাশে থাকা সরকারী দাগবিহীন ১৬ শতাংশ সরকারী সম্পত্তি তার দাবী করে জমির পশ্চিম পাশে পিলার নির্মান করে দখল করে নেওয়ার বিভিন্ন ফন্দিফিকির করে আসছিল এবং পশ্চিম দেউলভোগ মৌজার আর এস ৪৬৪ দাগের নয়নজলি সম্পত্তি অন্যত্র বিক্রি করে দেয় এনেতা। উক্ত দাগে পৈত্রিক ওয়ারিশ সূত্রে প্রাপ্ত ৫ শতাংশ সম্পত্তির মালিক তার চাচাতো ভাই মৃত অনিল রায়ের দুই ছেলে সুবল রায় ও রঘুনাথ রায়দ্বয়। স্বপন রায় দীর্ঘদিন যাবৎ সুবল রায়ের সম্পত্তি দখল করে রাখে এবং সম্প্রতি টিনের বেড়া নির্মান করে। সুবল রায় টিনের বেড়া নির্মানের প্রতিবাদ জানালে তাকে খুন জখম করার হুমকি প্রদর্শন করে স্বপন রায় ও তার ভাই ভাতিজা সিধু রায়।
এ ঘটনার বিষয়ে ভুক্তভোগী সুবল রায় বাদী হয়ে স্বপন রায়সহ তার ভাই ভাতিজার বিরুদ্ধে শ্রীনগর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এছাড়াও স্থানীয়রা আরো জানায়, স্বপন রায় আওয়ামী যুবলীগের নাম ভাঙ্গিয়ে ষোলঘর পাগলীবাড়ীর সামনে একটি জায়গাসহ ষোলঘর মৌজার ১৫৪৩,১৫৪৫ দাগের সরকারী খাস জমি দখল করে নেয়।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে ষোলঘর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের এক নেতা বলেন, স্বপন রায় প্রভাব খাটিয়ে অনেক অপকর্ম করেছে। কিছুদিন পূর্বে সে মদ্য পান করে মাতাল অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে এসে লোকজনদের অশ্লীল ভাষায় বকাঝকা করে। সে প্রায় সময় মদ্যপান করে মাতলামি করে লোকজনদের সাথে। সে হিন্দু দেখে আমরা কিছু বলতে পারি না বললেই, বলে সংখ্যালঘুর উপর নির্যাতন দেখে নিব।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ষোলঘর গ্রামের এক বাসিন্দা জানায়, কয়েক দিন পূর্বে স্বপন রায় ও তার ভাতিজা সিধু রায় মদ্যপান করে ঘোলঘর গুপ্তের নগর গ্রামের মিন্টু ও ঝন্টুদ্বয়ের সাথে মারপিটের ঘটনা ঘটায়।

এব্যাপারে স্বপন রায়ের কাছে জানতে চাওয়ার জন্য তার মুঠো ফোনে
ফোন দিলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এব্যাপারের সুবল রায়ের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার ও আমার ভাইয়ের সম্পত্তি ওরা দখল করে রেখে টিনের বেড়া দিয়েছে। আমি থানা অভিযোগ করেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *