মোঃ রাসেল হোসেন কলারোয়া সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:

কথা ছিল রাত পোহালেই ঘেরের মাছ ধরে বাজারে বিক্রি করে দিব। বিক্রিয়ের টাকা দিয়ে ঋণ পরিশোধ করব কিন্তু সেটা আর হলো না ক্ষুদ্র মাছ ব্যাবসায়ী রুউতসের। কারণ সকাল হওয়ার আগেই রাতের আঁধারে ঘেরে বিষ প্রয়োগ করে সব মাছ মেরে ফেলেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া উপজেলার লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়নের তিন নম্বর ওয়ার্ডের খাসপুরে।

শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) এর দিবাগত রাতে মাছের ঘেরে এ বিষ প্রয়োগ করে দুর্বৃত্তরা। এতে ওই ক্ষুদ্র মাছ ব্যবসায়ী নিঃস্ব হয়ে গেছে।

অসহায় ঘের মালিক রুউতস বলেন, আজ সকালেই ঘেরের মাছ ধরার কথা ছিল কিন্তু সেটা আর হলো না। রাতের আধারে ঘেরের সব মাছ বিষ দিয়ে মেরে ফেলেছে পার্শ্ববর্তী আলিম নামের এক ব্যক্তি। আমি তিন বছরের জন্য এক লাখ টাকার বিনিময়ে এই ঘেরটি লিজ নিয়েছি। আমার আগে এই ঘেরটি আলিমের কাছে ছিল।ওনার লিস শেষ হওয়ার পর ঘেরটি আবার নিতে চাইছিল কিন্তু তিনি আর নীতে পারে নাই। তাই ওই সময় আমার সাথে উনার শত্রুতা সৃষ্টি হয় আর ওই পূর্বে শত্রুতার জের ধরেই উনি আমার ঘেরে বিষ প্রয়োগ করছে বলে আমার ধারণা।

তিনি আরো বলেন, আমার এক লাখ টাকা লোন নেওয়া আছে ও দুই লাখ টাকার মত মানুষের কাছ থেকে ধার নিয়ে মাছ চাষ করছিলাম। আমার ঘেরে মাছ ছিল রুই, মৃগেল, কাতলা ,চীতল, জাপানি ট্যাবলেট , জাপানি পুটি , বাটা, তেলাপিয়াসহ অনেক প্রজাতির মাছ ছিল। আমি একটি মাছও নিতে পারি নাই, সব মাছ বিষ প্রয়োগের ফলে পঁচে নষ্ট হয়ে গেছে। এতে আমার প্রায় ৫ লক্ষ টাকার মত ক্ষতি হয়েছে।

উক্ত বিষয়ে বিবাদী আলিমের কাছে জানতে চাইলে উনি আমাদেরকে বলেন, রুউতস এর সাথে পূর্বে কোন শত্রুতা ছিল না আমার আর উনার ঘেরে কে বা কারা বিষ প্রয়োগ করছে সেটা আমি জানি না, আমি নিজেও বিষ প্রয়োগ করি নাই।

ঘেরে বিষ প্রয়োগ করার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন কলারোয়া থানা পুলিশের একটি টিম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *