নিজস্ব প্রতিনিধি: সাতক্ষীরায় জেলায় প্রথম ধাপে ৬০ হাজার ডোজ করোনা টিকা এসেছে। সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন সাফায়তে জানান, স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে ফ্রিজার গাড়িতে করে সকাল ৯ টার দিকে সাতক্ষীরা এসে পৌঁছেছে করোনার ৬০হাজার ডোজ টিকা। এসব করোনা টিকা জেলা ইপিআই ভবনে ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় আইএলআর ফ্রিজে সংরক্ষণ করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ডাঃ হুসাইন শাফায়াত জানান, সাতক্ষীরা স্বাস্থ্য বিভাগের সাড়ে ৪লাখ ডোজ টিকা রাখার সক্ষমতা রয়েছে। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী প্রথম ধাপের ৬০ হাজার ডোজ করোনা টিকা জেলায় সরকারি-বেসরকারি স্বাস্থ্যকর্মী, জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী, মুক্তিযোদ্ধা, গণমাধ্যমকর্মী, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, পুলিশ সদস্য, পয়নিস্কাশন কর্মীসহ বিভিন্ন পেশাজীবীদের প্রদান করা হবে। ভ্যাকসিন নেওয়ার পূর্বে স্ব স্ব দপ্তরের প্রধানের মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। তিনি আরও জানান, ১৮ বছর বয়স হতে ৭৯ বছরের মানুষের শরীরে ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে। কোন গর্ভবতী নারী এ ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে না। সবকিছু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নিদর্শনা অনুযায়ী চলবে। জনসংখ্যার তুলনা কম ভ্যাকসিন আসার কারন জানতে চাইলে তিনি জানান, একই নিয়ম অনুযায়ী দেওয়া হচ্ছে। তবে ক্রমে আসবে। প্রত্যেক ব্যক্তির জন্য দুটি ভ্যাকসিন দিতে হবে। কোথায় পাওয়া যাবে সদর হাসপাতাল, মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সকল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। নির্দিষ্ট দিন দিতে হবে। আগামী ৭ ফেব্রুয়ারী হতে ১০ ফেব্রুয়ারী মধ্যে জেলায় ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু হবে। ডাঃ হুসাইন শাফায়াত আরও জানান, করোনা টিকার কোন পাশ্বপ্রতিক্রীয়া নেই। টিকা নেওয়ার পরে নিত্য দিনের মতোই স্বাভাবিক কাজকর্ম করতে পারবে, টিকা নেওয়া প্রচলন দেশে বহু আগে থেকে কিন্তু করোনার ভ্যাকসিন মানুষ প্রথম গ্রহণ করছে। তবে ভয়ের কোন কারন নেই। এ টিকা সম্পন্ন নিরাপদ দেখে সরকার এটি মানুষের দেহে প্রদানের অনুমোদন দিয়েছেন। আশা করি সাতক্ষীরা মানুষ সুন্দর ভাবে ভ্যাকসিন গ্রহন করবেন। তবে সকলকে স্বাস্থ্য বিধি অবশ্যই মেনে চলতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *