মাজহারুল ইসলাম বাদলঃ- ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি:

সিদ্ধিরগঞ্জে নিজ ঘরে খুন হয়েছে নাজমুল সাকিব নাবিল (২০) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্র। রোববার রাত ৮টার পর রক্তাক্ত অবস্থায় নাবিলকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ২টার দিকে তার মৃত্যু হয়। ঘটনাটি ঘটেছে সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদী নতুন মহল্লার রোড নাম্বার-৩ এ নিহতের বাড়িতে। নিহত নাবিল ডেমরার গলাকাটা এলাকায় দারুন নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদ্রাসার ছাত্র এবং সে আলিম পরীক্ষার্থী ছিল।

নিহতের বাবা ছগির আহমেদ ইসলামী ব্যাংক নারায়ণগঞ্জ শাখায় কর্মরত। তিনি জানান, রোববার সকাল ৮টায় তিনি ব্যাংকে তার কর্মস্থলে যান। রাত ৮টায় বাসায় ফিরে ঘরের তালাবদ্ধ দেখতে পান। পরে তার কাছে থাকা দ্বিতীয় চাবি দিয়ে তালা খুলে দেখেন রক্তাক্ত অবস্থায় তার ছেলে আত্মনার্দ করছে। তার বুকে পেটে মাথায় ধারালো কিছুর আঘাতের চিহ্ন। এসময় স্ত্রী নাছরিন বেগম (৪০) কে বাসায় পাননি।

দ্রুত ছেলেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে সিদ্ধিরগঞ্জে সাইনবোর্ড প্রো-অ্যাকটিভ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। অবস্থা আসংখ্যা জনক দেখে কর্মরত ডাক্তার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে রাত ২টার দিকে নাবিল মারা যায়।

তিনি আরও জানান, তার সঙ্গে কারো কোন শত্রুতা নেই। তার স্ত্রী মানসিক ভারসাম্যহীন। মাঝে মাঝে তার স্মৃতিশক্তি লোপ পায়। ধারনা করা হচ্ছে তার স্ত্রী ছেলেকে খুন করে কোথাও চলে গেছে।

ছগির আহমেদ এর গ্রামের সোনারগাঁয়ের পৈতারগাঁও এলাকায়। সিদ্ধিরগঞ্জে পাইনাদী নতুন মহল্লায় বাড়ি কিনে স্ত্রী সন্তান নিয়ে বসবাস করছেন।

তিনি আরও জানান, চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি নাবিলকে পারিবারিক ভাবে বিয়ে করান আত্মীয়ের মধ্যে। ঈদের ৩দিন পর নাবিলের স্ত্রী ইমা (১৮) বাপের বাড়ি বেড়াতে গিয়ে সেখানেই ছিল। খবর পেয়ে সে সোমবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলে হাসপাতালে ছুটে যায়।

এদিকে খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল-ক) ইমরান সিদ্দিকী ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মশিউর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিহত নাবিলের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *