স্টাফ রিপোর্টার কাইয়ুম সরকার (হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি):

হবিগঞ্জ জেলার ক্যাম্প থেকে এক বিজিবি সদস্য নিখোঁজ রয়েছেন। তবে বিজিবি কর্মকর্তাদের ধারণা নিখোঁজ বিজিবি সদস্যের কাছে ২১ লাখ টাকা ছিল।
এটি নিয়ে তিনি উধাও হয়ে যেতে পারেন। এ ব্যাপারে বিজিবির পক্ষ থেকে শনিবার (৩ এপ্রিল) রাতে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

নিখোঁজ বরুণ বিকাশ চাকমা বিজিবির সৈনিক হিসেবে হবিগঞ্জ জেলার ধুলিয়াখাল ক্যাম্পের ক্যান্টিনে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের দায়িত্বে ছিলেন।
তার গ্রামের বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি দুরপর্য্যানাল এলাকায়। তারা বাবার নাম অনাদি রঞ্জন চাকমা।সদর থানার সাধারণ ডায়রিতে উল্লেখ করা হয়,

বিজিবি সৈনিক বরুণ বিকাশ চাকমা বিজিবি ক্যাম্পের ক্যান্টিনে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের দায়িত্বে থাকায় তার হাতে বিজিবি সদস্যদের নগদ ৩ লাখ টাকা ছিল। কিন্তু গত শনিবার সকাল থেকে তাকে খোঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকি তার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারটিও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।বিজিবি ৫৫ ব্যাটেলিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সামিউন্নবী বলেন, ‘বিজিবি সদস্যদের ৩ লাখ টাকা ছাড়াও হবিগঞ্জ শহরের রাজনগরে অবস্থিত স্কাই ডেস্ক কমিউনিকেশন থেকে ১৮ লাখ টাকা নিয়ে গেছেন তিনি।

তিনি ওই প্রতিষ্ঠানের সাথে নিয়মিত লেনদেন করতেন। আমরা বিভিন্ন স্থানে তার সন্ধান চালাচ্ছি।’

স্কাইডেস্ক কমিউনিকেশন (বিকাশের) কর্মকর্তা সৈয়দ ইশতিয়াক হাসান বলেন, ‘বিজিবির সৈনিক বরুণ বিকাশ চাকমা আমাদের সাথে প্রায় ৬ থেকে ৭ মাস ধরে ব্যবসায়িক লেনদেন করে আসছিলেন। প্রতি মাসেই তিনি বিজিবি ক্যাম্পের বিকাশ সংক্রান্ত যাবতীয় লেনদেন করতেন। এপ্রিলের শুরুতে তিনি আমাদের কাছ থেকে ১৮ লাখ টাকা নেন। শনিবার শুনলাম তিনি নিখোঁজ রয়েছেন। তার মোবাইল ফোনও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।’

হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার (ওসি) মো. মাসুক আলী বলেন, ‘বিজিবি’র পক্ষ থেকে এ বিষয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। ডায়েরিতে তারা শুধু বিজিবির ৩ লাখ টাকা নেয়ার কথা উল্লেখ করেছে। স্কাইডেস্ক কমিউনিকেশনের ১৮ লাখ টাকার বিষয়ে কেউ কোন অভিযোগ করেননি। পুলিশ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছে এবং নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধান চালাচ্ছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *