মিরু হাসান বাপ্পী
আদমদিঘী (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ
স্বামী উত্তম মোহন্ত গত ১৬ দিন আগে পাড়ি জমিয়েছেন না ফেরার দেশে যেখান থেকে আর ফেরা যায় না। সেই রেশ কাটতে না কাটতেই বগুড়া পৌরসভার ১৮ নং ওয়ার্ডের মগলিশপুর গ্রামের সদ্য বিধবা হওয়া এই মহিলাটির বাড়ি ভেঙে গেছে গতকালের ঝড়ে এ যেন মরার উপর খাড়ার ঘা। প্রকৃতিও যেন প্রতিশোধ নিল স্বামী হারানোর বেদনা মুছতে না মুছতেই , লন্ডভন্ড করে দিল সন্তানদের নিয়ে মাথা গোজার শেষ সম্বলটুকুও। নাবালক এক ছেলে আর এক মেয়ের জননী এই মহিলাটি সন্তানদের নিয়ে পড়েছে মহা বিপাকে। স্বামী নেই সন্তানের মুখে যেখানে দুবেলা দুই মুঠো ভাত দেওয়ায় কঠিন, সেখানে ঝড়ে ভেঙ্গেছে ঘর। মেরামত হবে কি করে, সন্তান দুটি ঘুমাবে কোথায় এই চিন্তা যেন তাকে করেছে বিভোর। যা অসহায় এই মহিলা ও সন্তানদের মলিন মুখের দিকে তাকালেই স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছিল।
স্বামীকে হারিয়ে দিশেহারা এই মহিলাটি প্রশাসনের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও সমাজের বিত্তবানদের নিকট আকুতি জানিয়েছেন যেন তার ঘরটি মেরামত করার একটা ব্যবস্থা করা হয়। অন্তত নিজে পরিশ্রম করে যাতে সন্তানদের মুখে দুবেলা খাবার দিয়ে রাতে একটু শান্তিতে ঘুমাতে পারে সেই ঘরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *